Class 8 Geography Combined Model Activity Task Full Marks 50

Class 8 Geography Combined Model Activity Task Full Marks 50

অষ্টম শ্রেণী ভূগোল

Class 8 Geography Combined Model Activity Task Full Marks 50

১. বিকল্পগুলি থেকে ঠিক উত্তরটি নির্বাচন করে লেখাে : 

১.১ ঠিক জোড়াটি নির্বাচন করাে—

ক) অন্তঃকেন্দ্রমণ্ডল – পদার্থের তরল অবস্থা 

খ) বহিঃকেন্দ্রমণ্ডল – পদার্থের ঘনত্ব সর্বাধিক 

গ) অ্যাস্থেনােস্ফিয়ার – পরিচলন স্রোতের সৃষ্টি

ঘ) ভূত্বক – লােহা ও নিকেলের আধিক্য 

উত্তর: গ) অ্যাস্থেনোস্ফিয়ার – পরিচলন স্রোতের সৃষ্টি

১.২ রকি ও আন্দিজ পর্বতমালার সৃষ্টি হয়েছে –

ক) মহাসাগরীয়-মহাসাগরীয় অপসারী পাতসীমানা বরাবর 

খ) মহাসাগরীয়-মহাসাগরীয় অভিসারী পাতসীমানা বরাবর 

গ) মহাদেশীয়-মহাদেশীয় অভিসারী পাতসীমানা বরাবর

ঘ) মহাদেশীয়-মহাসাগরীয় অভিসারী পাতসীমানা বরাবর 

উত্তর: ঘ) মহাদেশীয় – মহাসাগরীয় অভিসারী পাতসীমানা বরাবর

১.৩ উত্তর ভারতের স্থলভাগের সীমানা রয়েছে –

ক) পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার সঙ্গে 

খ) নেপাল ও ভুটানের সঙ্গে 

গ) বাংলাদেশ ও ভুটানের সঙ্গে 

ঘ) মায়ানমার ও শ্রীলঙ্কার সঙ্গে

উত্তর: খ) নেপাল ও ভুটানের সঙ্গে

১.৪ কর্কটীয় উচ্চচাপ বলয় থেকে নিরক্ষীয় নিম্নচাপ বলয়ের দিকে প্রবাহিত নিয়ত বায়ু হলাে –

ক) দক্ষিণ-পূর্ব আয়নবায়ু 

খ) উত্তর-পূর্ব আয়নবায়ু 

গ) দক্ষিণ-পশ্চিম পশ্চিমাবায়ু

ঘ) উত্তর-পশ্চিম পশ্চিমাবায়ু 

উত্তর: খ) উত্তর-পূর্ব আয়নবায়ু

১.৫ ঠিক জোড়াটি নির্বাচন করাে —

ক) বজ্রপাতসহ প্রবল বৃষ্টি — সিরাস মেঘ 

খ) জলীয় বাষ্পের জলকণায় পরিণত হওয়ার প্রক্রিয়া – বাষ্পীভবন 

গ) বৃষ্টিচ্ছায় অঞ্চল – পর্বতের প্রতিবাত ঢাল 

ঘ) ঘূর্ণবাতের কেন্দ্রে সর্বনিম্ন বায়ুচাপ – ঘূর্ণবাতের চোখ

উত্তর: ঘ) ঘূর্ণবাতের কেন্দ্রে সর্বনিম্ন বায়ুচাপ – ঘূর্ণবাতের চোখ

১.৬ পৃথিবীর বৃহত্তম মিষ্টি জলের হ্রদ হলাে –

ক) হরণ 

খ) ইরি 

গ) সুপিরিয়র

ঘ) মিশিগান 

উত্তর: গ) সুপিরিয়র

১.৭ ঠিক জোড়াটি নির্বাচন করাে—

ক) নিরক্ষীয় অঞ্চল – সূর্যের তির্যক রশ্মি 

খ) নিরক্ষীয় অঞ্চল- বায়ুর উচ্চচাপ 

গ) মেরু অঞ্চল- বায়ুর উচ্চচাপ

ঘ) মেরু অঞল – সূর্যের লম্ব রশ্মি 

উত্তর: গ) মেরু অঞ্চল- বায়ুর উচ্চচাপ

১.৮ উত্তর আমেরিকার আলাস্কা যে জলবায়ুর অন্তর্ভুক্ত তা হলাে –

ক) ক্রান্তীয় জলবায়ু 

খ) লরেন্সীয় জলবায়ু 

গ) ভূমধ্যসাগরীয় জলবায়ু

ঘ) তুন্দ্রা জলবায়ু 

উত্তর: ঘ) তুন্দ্রা জলবায়ু 

১.৯ দক্ষিণ আমেরিকার লাপ্লাটা নদী অববাহিকায় অবস্থিত বিস্তীর্ণ তৃণভূমি হলাে—

ক) গ্রানচাকো

খ) পম্পাস

গ) ল্যানােস

ঘ) সেলভা 

উত্তর: খ) পম্পাস

২. শূণ্যস্থান পূরণ করাে :

২.১ উত্তর-পশ্চিম ভারতে প্রবাহিত একটি স্থানীয় বায়ু হলাে __________ । 

উত্তর: লু

২.২ কোনাে একটি নির্দিষ্ট সময়ে সমপরিমাণ বৃষ্টিপাতযুক্ত স্থানগুলিকে মানচিত্রে __________ রেখার সাহায্যে যুক্ত করা হয় ।

উত্তর: সমবর্ষণ

২.৩ দক্ষিণ আমেরিকার আন্দিজ পর্বতের পশ্চিমে অবস্থিত পৃথিবীর অন্যতম শুষ্ক অঞ্চল __________ মরুভূমি ।

উত্তর: আটকামা

৩. বাক্যটি সত্য হলে ‘ঠিক’ এবং অসত্য হলে ‘ভুল’ লেখাে :

৩.১ রাত্রিবেলা স্থলভাগ থেকে সমুদ্রের দিকে সমুদ্রবায়ু প্রবাহিত হয়। 

উত্তর: ভুল

৩.২ আপেক্ষিক আদ্রর্তার সাথে উয়তার সম্পর্ক ব্যস্তানুপাতিক।

উত্তর: ঠিক

৩.৩ জুলাই-অগাস্ট মাসে আর্জেন্টিনায় গ্রীষ্মকাল বিরাজ করে। 

উত্তর: ভুল

৪. একটি বা দুটি শব্দে উত্তর দাও :

৪.১ রিখটার স্কেলের সাহায্যে কী পরিমাপ করা হয়? 

উত্তর: ভূমিকম্পের তীব্রতা

৪.২ গ্রানাইট শিলা গঠনকারী একটি খনিজের নাম লেখো।

উত্তর: কোয়ার্টাজ

৪.৩ ভারতের কোন প্রতিবেশী দেশ মশলা উৎপাদনে বিখ্যাত?

উত্তর: শ্রীলংকা

৫. সংক্ষিপ্ত উত্তর দাও :

৫.১ ভূ-অভ্যন্তরের কোন স্তরে কীভাবে পৃথিবীর চৌম্বক ক্ষেত্রের সৃষ্টি হয়েছে? 

উত্তর: ভূ-অভ্যন্তরের বহিঃকেন্দ্রমণ্ডলে পৃথিবীর চৌম্বকত্ব সৃষ্টি হয়েছে। এই স্তর অর্ধকঠিন অবস্থায় পৃথিবীর অক্ষের চারিদিকে আবর্তন করে চলেছে। সান্দ্র অবস্থায় থাকা লোহা প্রচন্ড গতিতে ঘুরতে ঘুরতে বৈদ্যুতিক ক্ষেত্র তৈরি করেছে, যেখান থেকেই সৃষ্টি হয়েছে পৃথিবীর চৌম্বকত্ব।

৫.২ পাকিস্তানে জলসেচের সাহায্যে কীভাবে কৃষিকাজ করা হয়? 

উত্তর: পাকিস্তানের কৃষিকাজ মূলত জলসেচের উপর নির্ভরশীল। পাকিস্তানের জলসেচ প্রধানত খালের মাধ্যমে হয়ে থাকে। সিন্ধু ও তার উপনদীগুলােতে বাঁধ দিয়ে জলাধার তৈরি করা হয়েছে। জলাধারগুলাে থেকে একাধিক সেচ খাল কাটা হয়েছে। পশ্চিমের শুষ্ক অঞ্চল গুলােতে মাটির নিচে সুরঙ্গ কেটে ক্যারেজ প্রথার মাধ্যমে কৃষিক্ষেত্রে জল নিয়ে যাওয়া হয়।

৫.৩ উত্তর আমেরিকার প্রেইরি সমভূমি দুগ্ধশিল্পে উন্নত কেন? 

উত্তর: প্রেইরি সমভূমি অঞ্চলের বিস্তীর্ণ এলাকা জুড়ে প্রেইরি তৃণভূমি অবস্থিত। বসনকালে বরফ গলে যাওয়ায় এই তৃণভূমির বিস্তীর্ন তৃণক্ষেত্রে হে, ক্লোভার, আলফা তৃণ ও ভুট্টা জন্মায়। তাই এই তৃণভূমি পশুচারণক্ষেত্র হিসাবে বিখ্যাত। পশুজাত দ্রব্য যেমন দুধ ও দুগ্ধজাত দ্রব্য সংরক্ষণের জন্য এখানে উন্নতমানের হিমাগার গড়ে উঠেছে। এই কারণে এই অঞ্চল দুগ্ধশিল্পে উন্নত।

৫.৪ সব মেঘ থেকে বৃষ্টি হয় না কেন?


উত্তর: সব মেঘ থেকে বৃষ্টি হয় না কারণ-
(i) মেঘের মধ্যস্থিত জলকণার ব্যাস ২ মিলিমিটার বা তার বেশি না-হওয়া পর্যন্ত বৃষ্টিপাত ঘটে না।
(ii) আপেক্ষিক আর্দ্রতা ১০০% বা তার বেশি না-হওয়া পর্যন্ত বৃষ্টিপাত ঘটে না, মেঘের মধ্যস্থিত জলকণাগুলি সংযুক্ত না-হওয়া পর্যন্ত বৃষ্টিপাত ঘটে না।

(iii) ঘনীভবন ঠিকমতো না-ঘটলে বৃষ্টিপাত ঘটে না।

৬. নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর দাও :

৬.১ অভিসারী পাতসীমানাকে কেন বিনাশকারী পাতসীমানা বলা হয় তা উদাহরণসহ ব্যাখ্যা করাে। 

উত্তর: অভিসারী পাত সীমানাকে বিনাশকারী পাত সীমানা বলা হয়, কারণ-
(i)অভিসারী পাতসীমানা বরাবর দুটো পাত পরস্পরের দিকে অগ্রসর হয় এবং সংঘর্ষ ঘটে। দুটো পাতের মধ্যে অপেক্ষাকৃত ভারী পাত হালকা পাতের নীচে প্রবেশ করে। এর ফলে নিমজ্জিত পাতটির গলন হয়, সমুদ্রখাত সৃষ্টি হয় ও ভূত্বকের বিনাশ ঘটে। এই অঞ্চলে প্রতিনিয়ত ভূমিকম্প ও অগ্নুৎপাতের ঘটনা দেখা যায়।
(ii) দুটি অভিসারী পাত সামুদ্রিক হলে তাদের উপর পলি ভাঁজ খেয়ে দ্বীপ ও দ্বীপপুঞ্জ সৃষ্টি হয়। যেমন প্রশান্ত মহাসাগরের পশ্চিম উপকূল বরাবর জাপান ও সন্নিহিত দ্বীপপুঞ্জ।
(iii) দুটি মহাদেশীয় অভিসারী পাতের সংঘর্ষে মাঝের সংকীর্ণ সমুদ্রের পলি ভাঁজ খেয়ে ভঙ্গিল পর্বতের সৃষ্টি করে। যেমন হিমালয় পর্বত।

৬.২ ‘আমাজন অববাহিকার ক্রান্তীয় বৃষ্টিঅরণ্য দুর্গম প্রকৃতির’– ভৌগােলিক কারণ ব্যাখ্যা করাে।


উত্তর: আমাজন নদী অববাহিকা জুড়ে অবস্থিত পৃথিবীর বৃহত্তম ও নিবিড়তম ক্রান্তীয় বৃষ্টিঅরণ্য। এই বৃষ্টিঅরণ্য দুর্গম প্রকৃতির হওয়ার কারণগুলি হলো-
(i) এখানকার গাছগুলোর পাতা বড়ো ও শক্ত। গাছগুলো ঘন সন্নিবিষ্ট হওয়ায় অরণ্যের তলদেশে সূর্যের আলো পৌঁছাতে পারে না। যেন মনে হয় অরণ্যের ওপরটা চাঁদোয়ার মতো ঢাকা আছে।

(ii) এই অরণ্যে বৃক্ষ শ্রেণির গাছের সাথে সাথে লতানে পরজীবী গাছ প্রচুর পরিমাণে জন্মায়।

(iii) সূর্যের আলো পৌঁছাতে না পারায় এই অরণ্যের তলদেশ স্যাঁতসেঁতে প্রকৃতির। এই পরিবেশে ফার্ন, ছত্রাক, শৈবাল ও বিভিন্ন ধরণের আগাছার সাথে সাথে বিষাক্ত অ্যানাকোনডা সাপ, ট্যারেনটুলা মাকড়সা, মাছি, মাংসাশী পিঁপড়ে, রক্তচোষা বাদুড়, জোঁক প্রভৃতি জীবজন্তু দেখা যায়।

☛ সমস্ত বিষয়ের উত্তর পেতে: Click Here

৬.৩ পম্পাস অঞ্চলকে দক্ষিণ আমেরিকার শস্য ভাণ্ডার বলা হয় কেন? 

উত্তর: পম্পাস অঞ্চল হল দক্ষিণ আমেরিকার অন্যতম কৃষি সমৃদ্ধ অঞ্চল। প্রধানত সমতল ভূপ্রকৃতি, নাতিশীতোষ্ণ জলবায়ু, বৃহদায়তন কৃষিজমি, উর্বর পলি মৃত্তিকা ও বায়ুবাহিত লোয়েস মৃত্তিকা, অত্যাধুনিক যন্ত্রপাতির ব্যবহার, বৈজ্ঞানিক পদ্ধতিতে জলসেচ, সুলভ ও দক্ষ কৃষকের যোগান, কৃষিজাত দ্রব্যের চাহিদা ইত্যাদি অনুকূল প্রাকৃতিক ও অর্থনৈতিক অবস্থাকে কাজে লাগিয়ে দক্ষিণ আমেরিকার পম্পাস অঞ্চলে প্রচুর পরিমাণে গম, বার্লি, আখ, তামাক, তুলো, তিসি, সোয়াবিন, নানা রকম শাক সবজি ও ফল ইত্যাদি উৎপাদন হয়। বিভিন্ন ধরনের ফসল বা শস্য প্রচুর পরিমাণে উৎপাদন হয় বলে পম্পাস অঞ্চলকে দক্ষিণ আমেরিকার শস্য ভান্ডার বলা হয়।

৭. নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর দাও :

৭.১ উদাহরণসহ উৎপত্তি অনুসারে আগ্নেয়শিলার শ্রেণিবিভাগ করাে। 

উত্তর: উৎপত্তি অনুসারে আগ্নেয় শিলা দুরকম। যথা-
(i) নিঃসারী আগ্নেয় শিলা: ভূ-অভ্যন্তরের অত্যধিক চাপে উত্তপ্ত গলিত ম্যাগমা ভূত্বকের কোনো দুর্বল ফাটলের মধ্যে দিয়ে ভূপৃষ্ঠে লাভা রূপে এসে শীতল ও কঠিন হয়ে যে আগ্নেয় শিলা সৃষ্টি করে তাকে নিঃসারী আগ্নেয় শিলা বলে।
যেমন- ব্যাসল্ট, অবসিডিয়ান।
(ii) উদবেধী আগ্নেয় শিলা: ভূ-অভ্যন্তরের গলিত ম্যাগমা ভূত্বকের দুর্বল ফাটল দিয়ে ভূপৃষ্ঠে পৌঁছতে না পেরে ভূ-অভ্যন্তরেই ধীরে ধীরে শীতল ও কঠিন হয়ে যে শিলার সৃষ্টি করে তাকে উদবেধী আগ্নেয় শিলা বলে।
যেমন- গ্রানাইট, ডোলেরাইট।
উদবেধী আগ্নেয় শিলাকে আবার দুভাগে ভাগ করা যায়। যথা- পাতালিক শিলা (যেমন- গ্রানাইট) ও উপপাতালিক শিলা (যেমন- ডোলেরাইট) ।

৭.২ ‘বায়ুচাপ বলয়গুলির অবস্থান পরিবর্তন দুই গােলার্ধের ৩০° থেকে ৪০° অক্ষরেখার মাঝের স্থানগুলির জলবায়ুর উপর বিশেষ প্রভাব ফেলে’– উপযুক্ত উদাহরণসহ বিষয়টি ব্যাখ্যা করাে। 

উত্তর: বায়ুচাপ বলয়গুলির অবস্থান পরিবর্তন দুই গোলার্ধের ৩০° থেকে ৪০° অক্ষরেখার মাঝের স্থানগুলির জলবায়ুর উপর বিশেষ প্রভাব ফেলে। এই অঞ্চলগুলো গ্রীষ্মকালে আয়নবায়ু আবার শীতকালে পশ্চিমা বায়ুর দ্বারা বিশেষভাবে প্রভাবিত হয়। যেমন-
(i) সূর্যের উত্তরায়নের সময় কর্কটীয় উচ্চচাপ বলয়টি উত্তর দিকে সরে যায়। ফলে গ্রীষ্মকালে স্থলভাগ থেকে আগত উত্তর-পূর্ব আয়ন বায়ুর প্রভাবে ভূমধ্যসাগরের সন্নিহিত দেশগুলোতে বৃষ্টিপাত প্রায় হয় না।
(ii) আবার সূর্যের দক্ষিণায়নের সময় কর্কটীয় উচ্চচাপ বলয়টি দক্ষিণ দিকে সরে যাওয়ায় ভূমধ্যসাগরের উপকূলবর্তী অঞ্চলে দক্ষিণ-পশ্চিম পশ্চিমা বায়ু প্রবাহিত হয়। ফলে শীতকালে এই অংশে জলভাগের ওপর দিয়ে বয়ে আসা দক্ষিণ-পশ্চিম পশ্চিমা বায়ুর প্রভাবে যথেষ্ট বৃষ্টিপাত হয়।

৭.৩ চিত্রসহ শৈলােৎক্ষেপ বৃষ্টিপাত সৃষ্টির প্রক্রিয়াটি বর্ণনা করাে।

উত্তর: শৈলোৎক্ষেপ কথাটির মধ্যে শৈল কথার অর্থ হল পর্বত এবং ‘উৎক্ষেপ’ কথার অর্থ উপরে ওঠা।
জলীয় বাষ্পপূর্ণ আর্দ্র বায়ু প্রবাহপথে আড়াআড়ি ভাবে অবস্থিত কোনো পর্বত বা উচ্চভূমির ঢালে বাধাপ্রাপ্ত হয়ে উর্দ্ধগামী হয়।
ওই বায়ু ক্রমশ প্রসারিত ও শীতল হয়। আরও উপরে উঠলে ক্রমশ ওই বায়ু সম্পৃক্ত হয়ে পড়ে। ধীরে ধীরে তা ঘনীভূত হয় ও মেঘে পরিণত হয়ে পর্বতের প্রতিবাত ঢাল বরাবর প্রচুর শৈলোৎক্ষেপ বৃষ্টিপাত ঘটায়।

শৈলোৎক্ষেপ বৃষ্টিপাত

☛ সমস্ত বিষয়ের উত্তর পেতে: Click Here

1. You may also like: Class 8 Model Activity Task 2021 All Subjects

2. You may also like: কীভাবে ‘Student Credit Card’ এর জন্য আবেদন করতে হবে।

Class 8 Model Activity Task Geography 2021

Official Website: Click Here

Class 8 Geography Model Activity Task November Part- 8

Class 8 Geography Full Marks 50

অষ্টম শ্রেণীর পরিবেশ ও বিজ্ঞান

Class 8 Geography Combined Model Activity Task Full Marks 50

Class 8 Geography Combined Model Activity Task Full Marks 50

1 thought on “Class 8 Geography Combined Model Activity Task Full Marks 50”

Leave a Comment

CLOSE

You cannot copy content of this page