Class-8 History Question-Answer Chapter-2

Class-8 History Question-Answer Chapter-2 অষ্টম শ্রেণী আঞ্চলিক শক্তির উত্থান প্রশ্ন উত্তর

অষ্টম শ্রেণী
বিষয়: ইতিহাস
অধ্যায় ২: আঞ্চলিক শক্তির উত্থান
অনুশীলনীর প্রশ্ন উত্তর

উত্তর:
অযোধ্যা —- সাদাৎ খান
১৭৬৪ খ্রিস্টাব্দ —- বক্সারের যুদ্ধ
স্বত্ববিলোপ নীতি —- লর্ড ডালহৌসি
লাহোরের চুক্তি —- প্রথম ইঙ্গ-শিখ যুদ্ধ
টিপু সুলতান —- মহীশূর

অষ্টম শ্রেণী আঞ্চলিক শক্তির উত্থান প্রশ্ন উত্তর

২। ঠিক শব্দটি বেছে নিয়ে শূন্যস্থান পূরণ করো :


ক) ঔরঙ্গজেবের শাসনকালে মুর্শিদকুলি খান ছিলেন বাংলার— (দেওয়ান/ফৌজদার/নবাব)।
উত্তর: দেওয়ান

খ) আহমদ শাহ আবদালি ছিলেন—(মারাঠা/আফগান/পারসিক)।
উত্তর: আফগান

গ) আলিনগরের সন্ধি হয়েছিল— (মির জাফর ও ব্রিটিশ কোম্পানির মধ্যে/সিরাজ ও ব্রিটিশকোম্পানির মধ্যে/মির কাশিম ও ব্রিটিশ কোম্পানির মধ্যে)।
উত্তর: সিরাজ ও ব্রিটিশকোম্পানির মধ্যে।

ঘ)ব্রিটিশ কোম্পানিকে বাংলা-বিহার ও উড়িষ্যার দেওয়ানির অধিকার দেন—(সম্রাট দ্বিতীয় শাহ আলম/সম্রাট ফাররুখশিয়র/
সম্রাট ঔরঙ্গজেব)।
উত্তর- সম্রাট দ্বিতীয় শাহ আলম‌।

ঙ) স্বেচ্ছায় অধীনতামূলক মিত্রতার নীতি মেনে নিয়েছিলেন—(টিপু সুলতান/সাদাৎ খান/নিজাম)।

উত্তর- নিজাম

৩। অতি সংক্ষেপে উত্তর দাও (৩০-৪০টি শব্দ) :
(ক) ফাররুখশিয়রের ফরমানের গুরুত্ব কি ছিল?

উত্তর: ১৭১৭ খ্রিস্টাব্দে দিল্লির মুঘল সম্রাট ফারুখশিয়র একটি আদেশ বা ফরমান জারি করেন। এতে ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানিকে বাংলাদেশে কতগুলি বিশেষ বাণিজ্যিক অধিকার দেওয়া হয়েছিল। যা ছিল যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ। যেমন-
(i) ব্রিটিশ কোম্পানি বছরে মাত্র ৩ হাজার টাকার বিনিময়ে বাংলায় বাণিজ্য করতে পারবে। কোম্পানিকে কোনো শুল্ক দিতে হবে না।
(ii) কোম্পানির পণ্য কেউ চুরি করলে তাকে বাংলার নবাব শাস্তি দেবেন ও কোম্পানিকে ক্ষতিপূরণ দেবেন।
(iii) কোম্পানির জাহাজের সঙ্গে অনুমতি পত্র থাকলেই জাহাজ অবাধে বাণিজ্য করতে পারবে।
(iv) বাংলার নবাবের মুর্শিদাবাদের টাঁকশাল প্রয়োজন মতো কোম্পানি ব্যবহার করতে পারবে।

(খ) কে, কীভাবে ও কবে হায়দরাবাদে আঞ্চলিক শাসন প্রতিষ্ঠা করেছিলেন?

উত্তর: হায়দ্রাবাদে আঞ্চলিক শাসন প্রতিষ্ঠা করেছিলেন মির কামার উদ-দিন খান সিদ্দিকি।
হায়দ্রাবাদ ছিল মুঘল সাম্রাজ্যের অধীন একটি প্রদেশ। এখানে মুঘল প্রাদেশিক শাসক মুবারিজ খান স্বাধীন শাসকের মতো শাসন করতেন। ১৭২৩ খ্রিস্টাব্দে মুঘল দরবারের শক্তিশালী অভিজাত মির কামার উদ-দিন খান সিদ্দিকি তাকে পরাজিত করেন। ১৭২৪ খ্রিস্টাব্দে তিনি দাক্ষিণাত্যের সুবাদার হয়ে হায়দ্রাবাদে নিজের আধিপত্য প্রতিষ্ঠা করেন। এরপর ১৭৪০ খ্রিস্টাব্দ থেকে নিজাম শাসিত স্বাধীন হায়দ্রাবাদ রাজ্য আত্মপ্রকাশ করে।

(গ) ‘পলাশির লুণ্ঠন’ কাকে বলে?

উত্তর: নবাব মির জাফরকে সহায়তা করার বিনিময়ে ব্রিটিশ কোম্পানি অবাধে সম্পদ হস্তগত করতে থাকে। পলাশির যুদ্ধের পর সিরাজের কলকাতা আক্রমণের অজুহাতে ১ কোটি ৭৭ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ নেয় কোম্পানি। তার উপরে ক্লাইভ সহ কোম্পানির উঁচু পদাধিকারীরা মির জাফরের থেকে প্রচুর সম্পদ ব্যক্তিগতভাবে পেয়েছিলেন। সব মিলিয়ে পলাশির যুদ্ধের পরে পরে প্রায় ৩ কোটি টাকার সম্পদ মির জাফরের থেকে আদায় করে ব্রিটিশ কোম্পানি। কোম্পানির তরফে এই অর্থ আত্মসাৎকে “পলাশির লুণ্ঠন ” বলা হয়।

(ঘ) দ্বৈতশাসন ব্যবস্থা বলতে কী বোঝো?

উত্তর: কোম্পানির দেওয়ানি লাভের ফলে বাংলায় এক নতুন ধরনের রাজনৈতিক শাসনতন্ত্র কায়েম হয়। বাস্তবে বাংলায় দুজন শাসক তৈরি হয়। যাবতীয় আইন শৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্ব রয়ে গিয়েছিল নবাব নজম উদ-দৌলার উপর। অন্যদিকে অর্থনৈতিক কর্তৃত্ব ও রাজস্ব আদায়ের অধিকার পেয়েছিল ব্রিটিশ কোম্পানি। ফলে নবাবের হাতে ছিল অর্থনৈতিক ক্ষমতাবিহীন রাজনৈতিক দায়িত্ব। ব্রিটিশ কোম্পানি পেয়েছিল দায়িত্বহীন অর্থনৈতিক ক্ষমতা। বাংলার এই শাসন ব্যবস্থাকে দ্বৈত শাসন ব্যবস্থা বলে।

(ঙ) ব্রিটিশ রেসিডেন্টদের কাজ কী ছিল?

উত্তর: ভারতীয় উপমহাদেশে অনেক অঞ্চলেই ব্রিটিশ কোম্পানি ‘পরোক্ষ শাসন’ চালাত। নিজের ব্যবসায়িক স্বার্থরক্ষা করার জন্য বিভিন্ন রাজদরবারে নিজেদের প্রতিনিধি রাখত কোম্পানি। সেই প্রতিনিধিরা রেসিডেন্ট নামে পরিচিত ছিল।
কোম্পানির নজর এড়িয়ে স্বাধীনভাবে কাজ করার ক্ষমতা ভারতীয় রাজশক্তিগুলির বিশেষ ছিল। কোম্পানির হয়ে সেই নজরদারির কাজটাই চালাত স্থানীয় ব্রিটিশ রেসিডেন্ট।

৪। নিজের ভাষায় লেখো (১২০-১৬০টি শব্দ) :
ক) অষ্টাদশ শতকে ভারতে প্রধান আঞ্চলিক শক্তিগুলির উত্থানের পিছনে মুঘল সম্রাটদের ব্যক্তিগত অযোগ্যতাই কেবল দায়ী ছিল? তোমার বক্তব্যের পক্ষে যুক্তি দাও।

উত্তর: অষ্টাদশ শতকে ভারতের প্রধান প্রধান আঞ্চলিক শক্তিগুলির উত্থানের পিছনে মুঘল সম্রাটদের ব্যক্তিগত অযোগ্যতাকে দায়ী করা হয়। তবে একটা সাম্রাজ্য তথা শাসনব্যবস্থা শুধু ব্যক্তি – সম্রাটের দক্ষতা – যোগ্যতার উপর নির্ভর করে না। তা বিভিন্ন বিষয়ের ওপর নির্ভর করে। এক্ষণে ভারতের আঞ্চলিক শক্তিগুলির উত্থানের কারণ উল্লেখ করা যেতে পারে। যথা-

(i) দুর্বল শাসন কাঠামো:
সম্রাট জাহাঙ্গির ও শাহ জাহানের সময় থেকেই মুঘল শাসন কাঠামোয় ছোটোবড়ো সমস্যা দেখা দিয়েছিল। ঔরঙ্গজেবের আমলে সেই দুর্বলতাগুলো আরও বেশি মাথা চাড়া দিয়ে উঠেছিল।

(ii) সামরিক ব্যবস্থার অবনতি:
বিশেষ কোনো সামরিক সংস্কার অষ্টাদশ শতকের মুঘল সম্রাটরা করেনি। ফলে সাম্রাজ্যের ভিতরের বিদ্রোহ ও বাইরের আক্রমণ মোকাবিলা করতে সামরিক ব্যবস্থা ব্যর্থ হয়।

(iii) জায়গির ও মনসবদারি ব্যবস্থার সংকট:
এই সময় ভূমি রাজস্বের হিসেবে নানা গরমিল দেখা যায়। এর নেতিবাচক প্রভাব সাম্রাজ্যের অর্থনীতির উপরেও পড়ে। এছাড়া ভালো জায়গির পাওয়ার জন্য অভিজাতদের মধ্যে দ্বন্দ্ব শুরু হয়।

(iv) কৃষক বিদ্রোহ:
সাম্রাজ্যের আয়-ব্যয়ের গরমিল বাস্তবে চাপ তৈরি করেছিল কৃষি ব্যবস্থার উপর সেই চাপের বিরুদ্ধে একাধিক কৃষক বিদ্রোহ দেখা দেয়।
পরিশেষে বলা যায় উপরিউক্ত বিভিন্ন কারণে অষ্টাদশ শতকের মাঝামাঝি সময় বিশাল মুঘল সাম্রাজ্যের কর্তৃত্ব দুর্বল হয়ে পড়েছিল। এই দুর্বলতার সুযোগ নিয়ে বিভিন্ন আঞ্চলিক শক্তিগুলির উত্থান ঘটে।

খ) পলাশির যুদ্ধ ও বক্সারের যুদ্ধের মধ্যে কোনটি ব্রিটিশ কোম্পানির ভারতে ক্ষমতা বিস্তারের জন্য বেশি গুরুত্বপূর্ণ ছিল তোমার বক্তব্যের পক্ষে যুক্তি দাও।

উত্তর: ১৭৫৭ খ্রিস্টাব্দে পলাশির যুদ্ধের পর ভারতীয় রাজনীতিতে ইংরেজদের উত্তরণ ঘটে। বাংলার নবাব ইংরেজদের হাতের পুতুলে পরিণত হয়। তবে পলাশির যুদ্ধে ভারতবর্ষে ব্রিটিশ সাম্রাজ্যবাদের যে ভিত্তি স্থাপিত হয়েছিল, বক্সারের যুদ্ধে তা সুপ্রতিষ্ঠিত হয়। ভারতে ব্রিটিশ কোম্পানির ক্ষমতা বিস্তারে পলাশির যুদ্ধের থেকে বক্সারের যুদ্ধ অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ হয়ে ওঠে। এর কারণগুলি হল-
(i) বক্সারের যুদ্ধের পর বাংলার স্বাধীন নবাবের অবসান ঘটে।
(ii) বক্সারের যুদ্ধের ফলে ভারতে ব্রিটিশ সাম্রাজ্য স্থাপনের পথ প্রশস্ত হয়।
(iii) বক্সারের যুদ্ধের পর বাংলা সম্পূর্ণভাবে ব্রিটিশদের নিয়ন্ত্রণে চলে আসে। তাছাড়া অযোধ্যার শাসকের পরাজয়ের ফলে পুরো উত্তর ভারতে ব্রিটিশ কোম্পানির ক্ষমতা বিস্তৃত হয়।
(iv) বক্সারের যুদ্ধ ভারতীয় রাজাদের দুর্বলতা প্রকাশ করে দেয়। ফলে সাম্ৰাজ্য বিস্তারে ইংরেজরা আত্মবিশ্বাসী হয়ে ওঠে।
(v) বক্সারের যুদ্ধের পর ইংরেজরা বাংলার বুকে একচেটিয়া শোষণ ও লুন্ঠন শুরু করে। ফলে বাংলার আর্থ-সামাজিক পরিকাঠামো ভেঙে পড়ে।
পরিশেষে বলা যায় পলাশির যুদ্ধে জেতার পর ব্রিটিশ ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি ভারতবর্ষে ক্ষমতা বিস্তারের যে বীজ বপন করেছিল বক্সারের যুদ্ধের পর তা অংকুরিত হয়ে ডালপালা বিশিষ্ট বৃক্ষে পরিণত হয়।

গ) মির কাশিমের সঙ্গে ব্রিটিশ কোম্পানির বিরোধের ক্ষেত্রে কোম্পানির বণিকদের ব্যক্তিগত ব্যবসার কী ভূমিকা ছিল? বাংলায় শাসন ব্যবস্থার প্রভাব কী হয়েছিল?

উত্তর: ব্রিটিশ কোম্পানি সহযোগিতায় নবাব পদ পাওয়ার ফলে প্রায় ২১ লক্ষ টাকার সম্পদ কোম্পানির আধিকারিকদের দিয়েছিলেন মির কাশিম। তাছাড়া বর্ধমান, মেদিনীপুর ও চট্টগ্রামের জমিদারির অধিকারও মির কাশিম ব্রিটিশ কোম্পানিকে দিয়েছিলেন। ফলে গোড়ায় মির কাশিমকে নিজেদের বশংবদ হিসাবেই ভেবেছিল ব্রিটিশ কোম্পানি। কিন্তু তাদের সেই ধারণা ভুল প্রমাণিত হয়। বাংলার রাজধানী হিসাবে মুর্শিদাবাদের বদলে মুঙ্গেরকে বেছে নিয়েছিলেন মির কাশিম। পাশাপাশি নবাবের পুরোনো সৈন্য বাহিনীকে খারিজ করে আধুনিক সেনাবাহিনী গড়ে তোলার উদ্যোগ নিয়েছিলেন তিনি। এমনকি ক্ষমতাবান জগৎ শেঠদের থেকেও দূরত্ব বজায় রেখেছিলেন মির কাশিম। তবে গোড়ায় ব্রিটিশ কোম্পানি মির কাশিমের পদক্ষেপগুলি নিয়ে বিশেষ ভাবিত ছিল না। ক্রমে ব্রিটিশ কোম্পানির কর্মচারীদের ব্যক্তিগত বাণিজ্যকে কেন্দ্র করে মির কাশিমের সঙ্গে কোম্পানির বিবাদ শুরু হয়। কোম্পানির বণিকদের তরফে বেআইনি ব্যবসার ফলে বাংলার অর্থনীতি সমস্যার মুখে পড়েছিল। একদিকে কোম্পানি শুল্ক ফাঁকি দেওয়ায় নবাবের প্রাপ্য রাজস্বে ঘাটতি পড়েছিল। অন্যদিকে দেশীয় বণিকরা শুল্ক দিতে বাধ্য হওয়ায় অসম প্রতিযোগিতার মুখে পড়েছিল। তাছাড়া অন্যান্য বিদেশি বণিক গোষ্ঠীও ব্রিটিশ কোম্পানির ক্ষমতার অপব্যবহার নিয়ে নবাবের কাছে নালিশ জানাতে থাকে। শেষপর্যন্ত নবাব দেশীয় বণিকদের উপর থেকেও বাণিজ্য শুষ্ক তুলে নেন। ফলে অসম প্রতিযোগিতার হাত থেকে দেশীয় বণিকরা রক্ষা পেলেও নবাবি কোশাগার অর্থসংকটের মুখে পড়ে।

👉 অষ্টম শ্রেণী বাংলা পাঠ্যপুস্তকের সমস্ত অধ্যায়ের প্রশ্নগুলির উত্তর: Click Here
👉 আমাদের YouTube চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করো: Click Here

You may also like: Class-8 Unit Test Question Papers


আঞ্চলিক শক্তির উত্থান প্রশ্ন উত্তর mcq
Class-8 History Question-Answer Chapter-2 Class-8 History Question-Answer Chapter-2

Class-8 History Important Question Answer

অষ্টম শ্রেণী বাংলা আঞ্চলিক শক্তির উত্থান প্রশ্ন উত্তর
অষ্টম শ্রেণী ইতিহাস আঞ্চলিক শক্তির উত্থান অনুশীলনীর প্রশ্ন উত্তর

Class-8 History Question-Answer Chapter-2

Official Website: Click Here

অষ্টম শ্রেণীর প্রথম ইউনিট টেস্টের ইতিহাস বিষয়ের প্রশ্নপত্র

অষ্টম শ্রেণীর ইতিহাস বিষয়ের দ্বিতীয় অধ্যায়ের প্রশ্ন উত্তর

1 thought on “Class-8 History Question-Answer Chapter-2”

Leave a Comment

CLOSE