Class 4 Model Activity Task Bengali September

Class 4 Model Activity Task Bengali September

এখানে শিক্ষাদপ্তর থেকে দেওয়া চতুর্থ শ্রেণীর বাংলা বিষয়ের ‘Model Activity Task 2021 3rd Series (September)’ এর প্রশ্নগুলির উত্তর আলোচনা করা হয়েছে। তোমরা বিষয় ভিত্তিক খাতায় উত্তরগুলো তৈরি করো।

Class 4 Model Activity Task Bengali September, 2021

১. নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর দাও:

১.১ ‘বোতোর দেখা পাওয়া নাকি সবসময়ই ভালো’ — ‘বোতো’র পরিচয় দাও।
উত্তর: বোতো একটি সামুদ্রিক প্রাণী, লম্বায় তিন-চার হাত। তার নাক বা ঠোঁট খুব সরু, লম্বায় প্রায় এক-দেড় হাত। মস্ত বড়ো মাথা, লেজটা শরীরের প্রান্ত থেকে দু-দিকে ভাগ হয়ে গিয়েছে। শরীরের রং গোলাপি।

১.২ ‘আমি সাগর পাড়ি দেবো’ কবিতাংশটি কোন কবিতা থেকে নেওয়া হয়েছে?
উত্তর: বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলামের লেখা ‘আমি সাগর পাড়ি দেবো’ কবিতাংশটি তাঁর লেখা পুতুলের বিয়ে নাটকের ‘সাত ভাই চম্পা’ কবিতা থেকে নেওয়া হয়েছে।

১.৩ স্যার ক্লেমেন্টস মার্কহ্যাম কে ছিলেন?
উত্তর: ইংল্যান্ডের ‘রয়েল জিওগ্রাফিকাল সোসাইটি’র প্রেসিডেন্ট ছিলেন স্যার ক্লেমেন্টস মার্কহাম।

১.৪ ‘সে আমি পারব না।’ – বক্তা কী পারবে না?
উত্তর: ঝড় উঠলেও শম্ভুর দাদু ফিরছে না দেখে তার পিসিমা শম্ভুকে লণ্ঠনটা নিয়ে এগিয়ে গিয়ে দেখতে বলেন। কিন্তু সন্ধ্যা হয়ে যাওয়ায় শম্ভু জানিয়ে দেয় সে তা পারবে না।

১.৫ ‘কিন্তু কিছু হলো না।’ কোন প্রসঙ্গে কথক একথা বলেছে ?
উত্তর: মণীন্দ্র গুপ্তের লেখা অ্যাডভেঞ্চার : বর্ষায় গল্পে দুই তিন দিন ধরে এক নাগাড়ে বৃষ্টি থামছে না দেখে কথকের পিসতুতো ভাই একটা তুক বলেছিল যে ১০০ টা পুর কাগজে লিখে পোড়ালে নাকি বৃষ্টি থেমে যায়। সেইমতো কথক কাশিপুর, চাঁদপুর, ফতেপুর, বদরপুর, শিবপুর, অনুরাধাপুর এবং পৃথিবীর যত পুর আছে সেগুলো লিখে পুড়িয়েছিল, কিন্তু তাতেও বৃষ্টি থামেনি। এই প্রসঙ্গে উক্ত কথা বলা হয়েছে।

১.৬ ‘ধলেশ্বরী খ্যাপা নদী।’ – একথা বলা হয়েছে কেন?
উত্তর: ধলেশ্বরী নদী তালে বেতালে চলে। এলোপাতাড়ি ঢেউয়ের ধাক্কা কখনও এদিক হতে এসে লাগে, কখনও ওদিক হতে। চলার তাল ঠিক রাখতে জানে না ধলেশ্বরী। তাই ধলেশ্বরীকে খ্যাপা নদী বলা হয়েছে।

১.৭ ‘মন উন্মন্ গো।’ – কার মনের এমন পরিস্থিতি ?
সত্যেন্দ্রনাথ দত্তের লেখা ‘ দূরের পাল্লা ‘ কবিতায় ঘোমটা – পরা এক গ্রাম্য বধুর মনের আনমনা পরিস্থিতির কথা এখানে বলা হয়েছে।

২. নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর নিজের ভাষায় লেখো :

২.১ ‘উবা আমার চোখের দৃষ্টি দেখে বুঝতে চায়… ‘ – উবা কী বুঝতে চায়?
উত্তর: জঙ্গলে ঘুরতে ঘুরতে উবা হাঁটু গেড়ে বসে এবং লেখককেও বসতে বলে। তারপর উবা লেখকের চোখের দৃষ্টি দেখে বুঝতে চায় তিনি কে? তিনি কোথা থেকে এসেছেন? কোন পৃথিবীর মানুষ তিনি, সেই পৃথিবীটা কীরকম?

২.২ ‘বর্শা দিয়ে বিঁধবে তারা, রাজ্যে আমার এলে।’ – কারা এমনটি করবে?
উত্তর: বিদ্রোহী কবি কাজী নজরুল ইসলামের লেখা ‘আমি সাগর পাড়ি দেবো’ কবিতার কথক হাঙর, কুমির, তিমি — প্রত্যেকের আক্রমণ প্রতিহত করে সপ্ত সাগর পারি দেবেন। এই জলদস্যু এবং হিংস্র প্রাণীরা তার রাজ্য আক্রমণ করলে সিন্ধু-গাজি, মোল্লামাঝি, নৌ-সেনা ও জেলেরা ওই জন্তুদের বর্শা দিয়ে বিঁধবে।

২.৩ ‘যাত্রা শুরু হলো সেই নির্দিষ্ট দেশের দিকে।’ – ‘দক্ষিণমেরু অভিযান’ রচনাংশ অনুসরণে সেই অভিজ্ঞতার বিবরণ দাও।
উত্তর: নৃপেন্দ্রকৃষ্ণ চট্টোপাধ্যায়ের লেখা ‘দক্ষিণ মেরু অভিযান’ গল্পে স্কট তার সহযাত্রীদের নিয়ে ১৯০২ সালের নভেম্বর মাসে স্লেজ গাড়িতে চেপে দক্ষিণ মেরুর দিকে যাত্রা শুরু করেন। কিছুদূর যেতে না যেতেই তীব্র তুষার ঝড়ের সম্মুখীন হতে হয় তাদের। এই অবস্থায় বেশি দূর না গিয়ে তারা ফিরে আসার সিন্ধান্ত নেন। বহু বাধা বিপত্তি কাটিয়ে কোনো রকমে প্রাণ হাতে নিয়ে তারা কিং এডওয়ার্ড দ্বীপে ফিরে আসেন।

Class 4 Model Activity Task Bengali (September)

২.৪ ‘আলো’ নাটকে বাদুড়দের গানের বক্তব্যটি কী?
উত্তর: লীলা মজুমদারের লেখা ‘আলাে নাটকে বাদুড়েরা গানের মাধ্যমে বোঝাতে চায় তাদের গুহাতে সোঁদা গন্ধ আর সেই গুহা বন্ধ। সেখানে অন্ধকারে তারা সাদা ধারাল দাঁত বের করে আর কালাে ডানা মেলে বসে আছে এবং তারা আলাে সহ্য করতে পারে না।

২.৫ ‘অ্যাডভেঞ্চার : বর্ষায়’ রচনাংশে কথক তাঁর ছোটোপিসিমার কথা কীভাবে স্মরণ করেছেন ?
উত্তর: ‘অ্যাডভেঞ্চার : বর্ষায়’ রচনাংশে কথক তাঁর ছোটোপিসিমার কথা স্মরণ করে বলেছেন তাঁর ছোটোপিসিমা বিধবা, একা একা ভিটে আগলান, ছেলেদের আগলান। কিন্তু তাঁর প্রাণশক্তি প্রচুর। দিনে তাড়াহুড়ো করে কাজ সারেন, রাতে লণ্ঠন জ্বালিয়ে পাহারা দেন। চোর, ডাকাত, প্রতিবেশী এবং সন্তানেরা কেউ তাঁর সঙ্গে এঁটে উঠতে পারে না।

২.৬ ‘নৌকো পাড়ে লাগে।’ – তখন ভাইবোনেরা কী করে?
উত্তর: ‘আমার মা-র বাপের বাড়ি’ গল্পে যখন নৌকা ধলেশ্বরী নদী পার হয়ে পাড়ে লাগে তখন ভাইবোনেরা নৌকা থেকে লাফিয়ে পড়ে। তারা নলখাগড়ার বনে এবং বালির চরে ছোটাছুটি করে। গতরাতে রান্না করা লুচি, আলুর দম, হালুয়া এসব জলের ধারে বসে খায়। তারপর হাত মুখ ধুয়ে আবার নৌকায় উঠে পড়ে।

২.৭ ‘দূরের পাল্লা’ কবিতায় নৌকো থেকে কোন্ দ‍ৃশ্য চোখে পড়ে?
উত্তর: সত্যেন্দ্রনাথ দত্তের লেখা ‘দূরের পাল্লা’ কবিতায় তিনজন মাল্লা দূরে যাত্রা করতে নৌকা চালানো শুরু করে। তাদের চোখে ভেসে ওঠে নানারূপ ছবি। দিনের বেলা তাদের চোখে পরে নদীর পাড়ে জমে থাকা জঞ্জাল, গজিয়ে ওঠা ঝোপঝাড়। নদীর জল শৈবালে পরিপূর্ণ, চরে জেগে থাকা কঞ্চির বন, বন হাঁসের তার নিজের ডিম শেওলায় ঢেকে ফেলার দৃশ্যের দেখা মেলে। পানকৌড়ি জলে ডুব দেয়, নদীর পাড়ে দ্রুত স্নান সারে ঘোমটা পরা বউ। এইসব দৃশ্য মাঝিদের চোখে পড়ে।

৩. নীচের প্রশ্নগুলির উত্তর দাও :

৩.১ মাসুদুর রহমান ছিলেন দক্ষ সাঁতারু। (কর্তাখন্ডকে বাড়াও)
উত্তর :- ভারতবর্ষের বিখ্যাত সাঁতারু মাসুদুর রহমান ছিলেন দক্ষ সাঁতারু।

৩.২ সৌগত বই দিলো। (ক্রিয়াখন্ডকে বাড়াও)
উত্তর : সৌগত বাংলা বই দিল।

৩.৩ নির্দেশ অনুযায়ী কর্ম এবং ক্রিয়া বসিয়ে শূন্যস্থান পূরণ করে বাক্য রচনা করো :

বাক্যটি হলো : ___________।

উত্তর : সব ভারতীয়ই দেশকে ভালোবাসেন ।

সমস্ত বিষয়ের উত্তর পেতে: Click Here

1. You may also like: Class 4 Model Activity Task 2021 All Subjects 3rd Series (September)

2. You may also like: কীভাবে ‘Student Credit Card’ এর জন্য আবেদন করতে হবে।

Class iv Model Activity Task Bengali September, 2021

Official Website: Click Here

Leave a Comment

CLOSE