পটাশিয়াম যুক্ত খাবার কি কি? কোন খাবারে সবচেয়ে বেশি পটাশিয়াম পাওয়া যায়? দেখুন উচ্চ পটাশিয়াম সমৃদ্ধ খাবারের তালিকা

ক্যালসিয়াম এবং সোডিয়ামের মতো পটাশিয়ামও আমাদের স্বাস্থ্যের পক্ষে দরকারি একটি খনিজ। ডায়েটে সঠিক পরিমাণে পটাশিয়াম রাখলে এটি আপনাকে সুস্থ ও সবল রাখতে সাহায্য করবে। তাই পটাশিয়াম যুক্ত খাবার খাওয়া খুবই গুরুত্বপূর্ণ।

পটাশিয়াম যুক্ত খাবার কি কি?

1. পটাশিয়াম যুক্ত ফল কলা, কমলালেবু, পেঁপে, কিছু শুকনো ফল, যেমন কিশমিশ এবং খেজুর।
2. পটাশিয়াম যুক্ত শাক-সবজিপালং শাক, ব্রকলি, আলু, মিষ্টি আলু, মাশরুম, টমেটো, শসা, কুমড়ো
3. পটাশিয়াম যুক্ত দুগ্ধজাত দ্রব্যদুধ এবং দই।
4. পটাশিয়াম যুক্ত ডাল জাতীয় শস্যমসুর ডাল, মটরশুটি
5. পটাশিয়াম যুক্ত অন্যান্য খাবারগুড়, বাদাম, চিকেন, গমের রুটি এবং পাস্তা।

আরও পড়ুন: কিডনি ড্যামেজের ১১ টি লক্ষণ

সুস্থ শরীরের জন্য কত পটাশিয়াম দরকার?

এখানে বয়স, লিঙ্গ ভেদে দৈনিক কত পটাশিয়াম দরকার তার তালিকা দেওয়া হলো। যাদের কিডনির বা অন্যান্য শারীরিক সমস্যা আছে তারা পটাশিয়াম গ্রহণের ব্যাপারে অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ নেবেন।

বয়সপুরুষমহিলাগর্ভাবস্থাস্তন্যদান
জন্ম থেকে 6 মাস400 মিলিগ্রাম400 মিলিগ্রাম
7-12 মাস860 মিলিগ্রাম860 মিলিগ্রাম
1-3 বছর2,000 মিলিগ্রাম2,000 মিলিগ্রাম
4-8 বছর2,300 মিলিগ্রাম2,300 মিলিগ্রাম
9-13 বছর2,500 মিলিগ্রাম2,300 মিলিগ্রাম
14-18 বছর3,000 মিলিগ্রাম2,300 মিলিগ্রাম
19-50 বছর3,400 মিলিগ্রাম2,600 মিলিগ্রাম2,900 মিলিগ্রাম2,800 মিলিগ্রাম
51+ বছর3,400 মিলিগ্রাম2,600 মিলিগ্রাম

আরও পড়ুন: আমন্ড বাদাম খাওয়ার উপকারিতা

পটাশিয়াম এর উপকারিতা কি?

১. আমাদের মাংস পেশীর সুস্বাস্থ্যের জন্য পর্যাপ্ত পটাশিয়ামের প্রয়োজন আছে।
২.পটাশিয়াম আমাদের স্নায়ুর কার্যকারিতা বৃদ্ধি করে।
৩. পটাশিয়ামের মাত্রা কমে যাওয়ার কারণে রক্তে শর্করার মাত্রাও কমে যায়।তখন মাথাব্যথা, দুর্বলতা, দুশ্চিন্তা প্রভৃতি দেখা দেয়।
৪. পটাশিয়াম শরীরে অ্যাসিডের মাত্রা কমায়। ফলে ক্যালসিয়াম সঠিকভাবে কাজ করতে পারে এবং হাড় মজবুত হয়।
৫. মস্তিষ্কের কার্যকারিতার জন্য পটাশিয়াম গুরুত্বপূর্ণ।

আরও পড়ুন: পেটের মেদ কমানোর উপায়

শরীরে পটাশিয়াম বেশি হলে কি হয়?

সাধারণত আমাদের রক্তে পটাশিয়ামের মাত্রা প্রতি লিটারে 3.5 – 5.0 মিলিলিটার হওয়া উচিত। এর চেয়ে কম বা বেশি হলে শরীরে নানা ধরনের সমস্যা দেখা দিতে পারে। পটাশিয়ামের মাত্রা বেড়ে যাওয়ার কারণে হার্ট অ্যাটাক এবং হার্ট ফেইলিউরের মতো অনেক গুরুতর সমস্যার সৃষ্টি হতে পারে। শরীরে পটাশিয়াম বেড়ে গেলে যে সমস্যাগুলি হয় তা হল-

১. শরীরে অসাড়তা বা শিহরণ অনুভূত হয়
২. মাংসপেশী দুর্বল হয়ে পড়ে
৩. বুকে তীব্র ব্যথা অনুভূত হয়
৪. বমি বমি ভাব সৃষ্টি হয়
৫. পেটে ব্যথা এবং শ্বাসকষ্ট শুরু হয়
৬. মানসিক ভারসাম্য বিঘ্নিত হতে পারে

আরও পড়ুন: রসুনের উপকারিতা

শরীরে পটাশিয়াম কম হলে কি হয়?

স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞদের মতে, পটাশিয়ামের ঘাটতি গুরুতর স্বাস্থ্য সমস্যা সৃষ্টি করতে পারে। পটাশিয়ামের অভাবে প্রায়শই দুর্বলতা, ক্লান্তি, পেশীতে খিঁচুনি, হজমের সমস্যা, স্নায়ুদুর্বলতা, শরীরে শিহরণ, অসাড়তা এবং শ্বাসকষ্ট হয়।

Disclaimer:
এখানে দেওয়া তথ্য শুধুমাত্র সাধারণ জ্ঞানের জন্য। এটি কোনো পেশাদার চিকিৎসকের পরামর্শের বিকল্প নয়। কোনো কিছু গ্রহণ করার আগে অবশ্যই আপনার চিকিৎসকের পরামর্শ নেবেন।

👉 স্বাস্থই সম্পদ: Click Here

👉 Subscribe Our YouTube Channel: Click Here

আর পড়ুন: আমাশয় রোগের ঘরোয়া চিকিৎসা

Leave a Comment

CLOSE

You cannot copy content of this page